আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

নাঙ্গলকোট- লাকসাম সড়কের প্রশস্থতা কম

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট: নাঙ্গলকোট-লাকসাম সড়কটির প্রশস্ততা কম হওয়ায় যাতায়াতে জনসাধারণকে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয় নাঙ্গলকোট উপজেলাবাসীকে জেলা শহর ঢাকা- চট্রগ্রাম সহ দেশের বিভিন্ন স্থানের সাথে এই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করতে হয় সওজের আওতাধীন এই গুরুত্বপূর্ণ সড়ক দিয়ে এলাকাবাসী দেশের বিভিন্ন স্থানে সহজভাবে যাতায়াত করে থাকে কিন্তু সড়কটির পাশের প্রশস্ত কম হওয়ায়  দুটি যানবাহন একসাথে ক্রসিং করতে পারে না  একটি যানবাহন দাঁড়িয়ে অন্যটিকে সাইড দিতে হয় এতে ১৫/২০ মিনিটের পথ পাড়ি দিতে সময় লেগে যায় অন্তত একঘন্টা সড়কটি উপজেলার সাথে জেলা সদরসহ বিভিন্ন স্থানের যোগাযোগের  একমাত্র সড়ক হওয়ায় প্রতিদিন সড়ক দিয়ে মালবাহী ট্রাক, ট্রাকটর,কাভার্ডভ্যান,পিকআপভ্যান,বাস,সিএনজি অটোটেক্সী সহ বিভিন্ন ধরণের হালকা ভারী যানবাহন চলাচল করে থাকে
জনগুরুত্বপূর্ণ সড়ক দিয়ে যাতায়াত কালে ঝুঁকিপূর্ণভাবে দাঁড়িয়ে একটি যানবাহন অপরটিকে সাইড দিতে হয় এতে যে কোন মূহুর্তে দুর্ঘটনা ঘটার আশংকা থাকে ইতিপূর্বে সড়কটিতে বেশ কয়েকটি দুঘর্টনার ঘটনাও ঘটেছে আর দুর্ঘটনার কবলে পড়ে অনেকেই নিহত আহত হয়েছে সড়কটির লাকসাম বাইপাস থেকে দামবাহার পর্যন্ত দক্ষিণ পার্শ্বে খাল থাকায় সড়কটি দিনদিন খালের মধ্যে ভেঙ্গে বিলীন হতে চলেছে খালের মধ্যে গার্ড ওয়াল নির্মাণ করা হলে অধিকাংশ স্থানে গার্ড ওয়ালের অস্তিত্ব বিলীন হয়ে গেছে দীর্ঘ দিন ধরে সড়কটিতে মেরামতের কাজ না করায় বিভিন্ন স্থানে পিচ উঠে গিয়ে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে তাছাড়া, নাঙ্গলকোট বাজার থেকে স্টীল ব্রীজ পর্যন্ত সড়কটি অত্যান্ত ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে ওই স্থানে সড়কের পাশ ভেঙ্গে খালের মধ্যে পড়ে যাচ্ছে

উপজেলাবাসীর দীর্ঘ দিনের দাবী নিরাপদ এবং সহজ যাতায়াতের জন্য সড়কটির প্রশস্ততা বাড়ানো কিন্তু সড়কটির প্রশস্ততা বড়ানোর কাজে দীর্ঘ দিনেও কেউ এগিয়ে আসেনি। উপজেলাবাসী জরুরী ভিত্তিতে সড়কটির প্রশস্ততাা বাড়িয়ে মেরামত করার জন্য সরকরের প্রতি জোর দাবী জানান।
সড়ক জনপথ বিভাগের (কুমিল্লা) নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আবদুর রহিম বলেন, সড়কটি উন্নয়নের জন্য এডিবির একটি প্রকল্পে দেয়া আছে। যার অগ্রগতি অনেক এগিয়ে রয়েছে। বরাদ্ধ পাওয়া গেলেই সড়কটির প্রশস্ত করণ মেরামত একসাথে করা হবে