আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

যান চলাচলে চরম ভোগান্তি! লাকসাম- মনোহগঞ্জ সড়কের বেহাল দশা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট: মনোহরগঞ্জ সড়কের বেহাল দশা। কুমিল্লা জেলার লাকসাম উপজেলা একটি গুরুত্বপূর্ন উপজেলা। বৃহত্তর লাকসাম উপজেলার একটি অংশ নিয়ে নব গঠিত মনোহরগঞ্জ উপজেলা ঘোষনা করা হয়। দুই উপজেলার যাতায়াতের জন্য প্রধান সড়ক লাকসাম – মনোহরগঞ্জ সড়ক। দীর্ঘ ১২ কিলোমিটার সড়কের গাজীমুড়া, মোহাম্মদপুর,গোবিন্দপুর, গাজীরপাড়,আশিরপাড়, খানাতুয়া, গোয়ালিয়ারা, হাটিরপাড়সহ অধিকাংশই খানা খন্দকে ভরা।
১১টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত মনোহরগঞ্জ উপজেলা ঘোষনার ৮বছরের মাঝে নামে মাত্র দু একবার সংস্কার করা হলে ও ৬ মাসের মাথায় আবার রাস্তার বেহাল দশায় পরিণত হয়। নবগঠিত মনোহরগঞ্জ উপজেলায় প্রায় ৩ লক্ষ লোকের বসবাস।


উপজেলা সদরে যাতায়াতের জন্য প্রধান এ সড়কে বেহালা দশায় যান ও জন চলাচলের চরম ভোগান্তির শিকার হয়। রাস্তার এ বেহাল দশার কারনে ১২ কিলোমিটার সড়কে যাতায়াতে প্রায় ১ঘন্টা সময় লাগে। বিগত ৬ মাস আগে নামে মাত্র সংস্কার করা হলেও পূর্বের ন্যায় রাস্তার অবস্থা বেহাল দশা । গাজীরপাড়, গোবিন্দপুর, আশিরপাড় সড়কের একঅংশ দেবে গেছে যে কোন সময় যোগাযোগ বিছিন্ন হওয়ার আশংকা রয়েছে। বর্ষা মৌসুমে খানা খন্দে পানি জমার কারনে স্কুল ও কলেজগামী ছাত্র-ছাত্রী এবং যাতায়াতকারীদের জামা-কাপড় ময়লা পানিতে ভিজে যায়। অনতিবিলম্বে পরিকল্পিত ভাবে সড়ক মেরামত না করা হলে যে কোন সময় যোগাযোগ বন্ধ হওয়ার অপক্রম রয়েছে।


এ বিষয়ে সড়ক ও জনপথ লাকসাম আঞ্চলিক অফিসের উপ-সহকারী মোসলেহ উদ্দিন জানান, লাকসাম-মনোহরগঞ্জ সড়কের অধিকাংশস্থানে পুকুর ও খাল থাকার কারনে এবং ছোট খাট গর্তে পানি জমে রাস্তায় ফাটলসহ দূর অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে । এ বিষয়ে একাধিকবার সড়ক ও জনপদের অফিসকে অবহিত করা হয়েছে। অর্থের সংস্থান হলেই কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া হবে।