আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

নদনা খাল খননের অভাবে ফসল উত্পাদন ব্যাহত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট: [রোববার, ২০ মে ০১২] লাকসামের নবগঠিত মনোহরগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণাঞ্চলের নদনা খাল খননের অভাবে প্রতিবছর এলাকার ৪০ হাজার একর জমির শত কোটি টাকার ফসল উত্পাদন থেকে কৃষকরা বঞ্চিত হচ্ছেন।..
দীর্ঘদিন পলি জমে ভরাট হয়ে যাওয়ায় নদনা খালটির অস্তিত্ব বিলীন হওয়ার উপক্রম হয়েছে ফলে শুষ্ক মৌসুমে সেচের অভাবে ইরি, বোরো, আমন ধানসহ বহু অর্থকরী ফসল উত্পাদন থেকে কৃষকরা বঞ্চিত হচ্ছেন জানা যায়, মনোহরগঞ্জের নদনা খাল দিয়ে একসময় শত শত নৌযান চলাচল করত এবং খালের মাধ্যমে জমিতে চাষাবাদ করে উত্পাদিত ফসল চাহিদা পূরণ করেও ঘাটতি এলাকায় সরবরাহ করতে সক্ষম ছিল বর্তমানে নদনা খালটি ভরাট হয়ে যাওয়ায় নৌযান চলাচল বন্ধসহ সেচ কাজে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে পানি নিষ্কাশনের অভাবে কৃষকরা ইরি-বোরোসহ অর্থকরী ফসল ঠিকভাবে ঘরে তুলতে আমন ফসলের বীজ বুনতে পারে না নদনা খালে পানি না থাকায় কৃষকরা শ্যালো গভীর নলকূপের মাধ্যমে ইরি-বোরো চাষাবাদ করে তাছাড়া খালটি ভরাট হয়ে যাওয়ায় শত শত জেলে বেকারত্বের অভিশাপে মানবেতর জীবন যাপন করছে ৮০ দশকে কাজের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচির আওতায় নদনা খালটি পুনঃখননের জন্য প্রকল্প গ্রহণ করা হলেও পরবর্তী সময় তা বন্ধ হয়ে যায়
নবগঠিত মনোহরগঞ্জের নদনা খাল পুনঃখননের জন্য গত বিএনপি জোট সরকারের আমলে স্থানীয় সংসদ সদস্য আনোয়ার-উল-আজিম এলাকাবাসীর দাবির কথা চিন্তা করে জাতীয় সংসদে নোটিশ করেন ভরাট হয়ে যাওয়া নদনা খালটি পুনঃখনন করা হলে প্রতিবছর শত শত কোটি টাকার ইরি-বোরোসহ বহু অর্থকরী ফসল উত্পাদন করা সম্ভব এলাকাবাসী দীর্ঘদিন ধরে নদনা খাল পুনঃখননের দাবি জানিয়ে আসছিল কিন্তু কোনো সরকারের আমলে নদনা খাল পুনঃখননে কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি
ফলে এলাকার প্রায় ৪০ হাজার একর জমির শত কোটি টাকার ফসল উত্পাদন থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন কৃষকরা