আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

বাহরাইনে নিহত হওয়া ১০ বাংলাদেশির পরিবারকে ২ লক্ষ টাকা করে দিবে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ [বুধবার, ৩০ মে ২০১২] বাহরাইনে আগুন লেগে ধোঁয়ায় দমবন্ধ হয়ে নিহত ১০ বাংলাদেশির প্রত্যেকের পরিবারকে ২ লাখ টাকা করে সহায়তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।..
এই আর্থিক সহায়তার পাশাপাশি বাহরাইন থেকে লাশ দেশে এনে দাফনের সব খরচও সরকারই বহন করবে বলে তিনি জানান। উল্লেখ্য গত রোববার বাহারাইনে ১০ বাংলাদেশী মারা যায়। ১০ জনের মধ্যে ৮ জনের বাড়ি কুমিল্লার সদর দক্ষিণ, লাকসাম ও চৌদ্দগ্রাম উপজেলায়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায় এই দূর্ঘটনায় মারা যাওয়া লাকসামের ছেলেটির বাড়ি নরপাটি গ্রামে। নাম তার শাহ আলম নুরু। ছেলেকে বিয়ে করানোর স্বপ্ন ভেঙ্গে গেল নুরুর পিতার। উপজেলার নরপাটি ইউনিয়নের মধ্য চাঁনপুর গ্রামের শামসুল হক সামুর ছেলে শাহ আলম নুরু (২৮) কর্মের সন্ধানে ২০০৬ সালে বাহরাইনে যায়। পরিবারের অস্বচ্ছলতাকে দূর করতে একটানা ৬ বছর পর আগামী মাসে বাড়ি আসার কথা ছিল তার। বাড়ি আসলে বিয়ে করানোর জন্য কয়েক জায়গায় মেয়েও দেখেছে নুরুর পিতা শামসল হক। রোববার বাংলাদেশ সময় সকাল ৭টায় বাহরাইন থেকে আসা একটি দু:সংবাদ নিশ্চিহ্ন করে দিল পিতা সামসুল হকের ছেলেকে বিয়ে করানোর স্বপ্ন। রোববার বিকেল পৌনে ৬টায় সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, স্বপ্ন ভাঙ্গা পিতা সামু ও মাতা নুর জাহান বাড়ির আঙ্গিনায় বিছানায় বসে কাঁদছেন। ছেলের বাঁধাই করা ছবি বুকে নিয়ে শোকে পাথর হয়ে রয়েছেন নূরজাহান। ৫ ভাইয়ের মধ্যে নুরু ছিল সবার বড়। তাই বাড়ির সবারও ছিল তার প্রতি একটু বেশি মায়া। তাই পিতা-মাতার কান্নার সাথে তারাও একই শোকে কাঁদছে।