আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

গুম নিয়ে ঘুম নেই (ভিডিও)

সোহরাব হাসান: একটি গুমের ঘটনা গোটা জাতির ঘুম হরণ করে নিয়েছে সবাই ব্যস্ত সেই গুমের রহস্য বের করতে কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো কিনারা পাওয়া যাচ্ছে না।..

বিএনপির নেতা ইলিয়াস আলীর গুম হয়ে যাওয়ার ঘটনায় দেশবাসী উদ্বিগ্ন হরতাল সমর্থন না করেও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ উদ্বেগ প্রকাশ করেছে দেশি-বিদেশি মানবাধিকার সংগঠনও
সরকার শুরু থেকেই দাবি করে আসছে, ইলিয়াস আলীকে উদ্ধারে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী দিন-রাত কাজ করছে পুবাইলে প্রথম অভিযানে তারা ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসিনা রুশদীরকেও নিয়ে গিয়েছিল আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের ভাষ্য অনুযায়ী, ইলিয়াস আলীকে উদ্ধারে এক হাজার ২০০ অভিযান চালানো হয়েছে ধরে নেওয়া যায়, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ঘুমকে হারাম করে উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে একজন মানুষকে উদ্ধারে এক হাজার ২০০ অভিযান! তার পরও দেশবাসী অন্ধকারে
ইলিয়াস আলী উদ্ধারে যেসব দল পাঁচ দিন সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালন করেছে, তাদের চোখেও ঘুম ছিল না কী করে ঘুম থাকে? এক দিন, দুই দিন নয়পাঁচ দিনের হরতাল আবার এই হরতাল পালন করতে যারা গাড়ি ভাঙচুর করেছে, আগুন দিয়েছেনিশ্চয়ই তাদের ঘুমের ব্যাঘাত হয়েছে হরতাল সমর্থকদের আগুনে পুড়ে মারা গেছেন খুলনা থেকে আগত এক বাসচালক মারা গেছেন সাভারে এক ট্যাক্সিক্যাবচালক মারা গেছেন বিশ্বনাথের তিন বিএনপির নেতা-কর্মী এই স্বজনহারা পরিবারের কারও চোখে ঘুম নেই ঘুম নেই খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষের চোখেও
রাতের ঘুম নষ্ট করে সরকার বিরোধী দলের নেতারা কথার বিস্ফোরণ ঘটাচ্ছেন একজন রকেট মারলে আরেকজন বোমা ছুড়ছেন সামনে বাজেট অর্থমন্ত্রী রাজনীতিকদের কথার ওপর কর ধার্য করলে দুই দলের কয়েকজন চেনা মুখ নেতাকে সব চেয়ে বেশি কর দিতে হবে তাতে বাজেট ঘাটতিও কিছুটা কমবে
সরকারি দলের নেতারা বলছেন, ইলিয়াস আলীকে লুকিয়ে রেখে বিএনপি রাজনৈতিক ফায়দা আদায়ের চেষ্টা চালাচ্ছে অন্যদিকে বিএনপি নেতাদের দাবি, সরকারের লোকজনই তাঁকে গুম করে ফেলেছে সরকার যদি জানেই যে বিএনপির নেতারা তাঁকে লুকিয়ে রেখেছেন, তাহলে তাদের প্রথম দায়িত্ব সেখান থেকে তাঁকে উদ্ধার করে দেশবাসীর কাছে বিএনপির মুখোশ উন্মোচন করা
আবার বিরোধী দল যদি নিশ্চিত থাকে যে সরকারের লোকেরাই তাঁকে নিয়ে গেছে সে ক্ষেত্রেও তাদের প্রথম প্রধান কর্তব্য তার পক্ষে তথ্যপ্রমাণ হাজির করা কিন্তু সেসব না করে তারা সব সমস্যার অভিন্ন সমাধান হিসেবে দিনের পর দিন হরতাল পালন করছে কেননা, হরতালে তাদের বা সরকারের কোনো ক্ষতি নেই ক্ষতি হয় আমজনতার
এবারে এমন সময়ে হরতাল করা হলো যখন এইচএসসি পরীক্ষা চলছিল ফলে ছাত্রছাত্রীরা কয়েকটি পরীক্ষা দিতে পারেনি কয়েকটির তারিখ বদল হয়েছে এতে তাদের ওপর যে মানসিক চাপ সৃষ্টি হল তার দায় কে নেবে? কারণেই আমরা সব সময় বলে এসেছি, হরতালের বিকল্প খুঁজুন একটি হরতাল অনেক অঘটনের জন্ম দেয়, অনেক মানুষের প্রাণ কেড়ে নেয়
হরতালের কারণে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটছে সব শ্রেণী পেশার মানুষের প্রতিদিনই উদ্বিগ্ন জিজ্ঞাসা—‘আগামীকাল কী হবে?’ একপক্ষ জনগণকে সেই হরতাল পালনে বাধ্য করতে গাড়ি ভাঙচুর করে, জ্বালিয়ে দেয়, অপরপক্ষে হরতাল ঠেকাতে রাস্তায় মিছিল বের করে আতঙ্ক ছড়ায় এই হলো বাংলাদেশের তথাকথিত গণতান্ত্রিক রাজনীতি!
ইলিয়াস আলীর গুম হওয়া নিয়ে মনে হচ্ছে সরকারও এখন নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে মন্ত্রীরা-নেতারা প্রতিদিনই অভয় বাণী শোনাচ্ছেন নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন বিরোধী দলের নেতা-কর্মীরাও পাঁচ দিনের সফল হরতাল করে এখন তারা নতুন হরতালের প্রস্তুতি নিচ্ছে
ঘুম নেই নাগরিক সমাজের চোখেও এত বড় ঘটনার পর তাদের তো কিছু করণীয় আছে দায়িত্ব আছে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন গণমাধ্যমের কর্মীরাও আমরা জানি এখন রাত ১১টার মধ্যেই পত্রিকায় কাজ শেষ হয়ে যায় কিন্তু একটি পত্রিকা রাত তিনটায় হান্নান শাহের বাসায় পুলিশের তল্লাশির খবর দিয়েছে
১৭ এপ্রিল মধ্যরাতে গাড়ির চালকসহ ইলিয়াস আলী গুম হয়ে যাওয়ার পর নিয়ে পত্রপত্রিকায় যত কল্পনাপ্রবণ খবর বের হয়েছে, তা পৌরাণিক কাহিনিকেও হার মানায় পাঠক ঠিক করতে পারছেন না কোন খবরটি ঠিক? কে সত্য বলছে, কে মিথ্যে বলছে ধারণা করা কঠিন
ইলিয়াস আলীর নিখোঁজ হওয়া সম্পর্কে সব চেয়ে মারাত্মক কথাটি বলেছেন, শ্রম প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান মে দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে তিনি বলেছেন, ‘ইলিয়াসের স্ত্রী জানেন তাঁর স্বামীর প্রকৃত খুনি কে?’ একই সঙ্গে মন্নুজান সুফিয়ান প্রধানমন্ত্রীর কাছে খুনির নাম বলে দেওয়ারও পরামর্শ দিয়েছেন তাঁর স্ত্রীকে
জানি না, মন্নুজান সুফিয়ান কথাটি বুঝে-শুনে বলেছেন কি না তাঁর কথার মাধ্যমে দেশবাসী কী বার্তা পাবেন? সরকার এক হাজার ২০০ অভিযান চালিয়ে যা বের করতে পারেনি, সেই সত্য শ্রম প্রতিমন্ত্রী মে দিবসে কী করে বের করলেন?
সরকারি দলের নেতারা বলেছিলেন, তাঁরা ইলিয়াস আলীকে জীবিত উদ্ধার করতে চেষ্টা চালাচ্ছেন আর শ্রম প্রতিমন্ত্রী তাঁর খুনির সন্ধান দিতে বলেছেন
এর মাধ্যমে কি তিনি মানুষের চোখের শেষ ঘুমটুকুও কেড়ে নিলেন না?