আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

জালগাঁও গ্রামে এক সংখ্যালঘুকে পিটিয়ে হত্যা

চন্দন সাহা স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট: [শনিবার, ২১ এপ্রিল ০১২] গতকাল শুক্রবার রাতে  কুমিল্লার সদরদক্ষিন উপজেলায় এক সংখ্যালঘুকে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে
উপজেলার বেলঘর : ইউপির জালগাঁও গ্রামের শশী কুমার দেবনাথের ছেলে রমেশ চন্দ্র দেবনাথ (৭০এর ভাতিজা বিমল চন্দ্র দাসকে সঙ্গবদ্ধ ভাবে একই পাড়ার ইদ্রিছ  মিয়ার ছেলে ইউছুফ (৪০), ছোবাহান (৩৮), ইলিয়াছ (৩৫), আমিন (৩২), ছোবাহানের ছেলে রাজু (২০), মামুন (১৮) ইদ্রিছ মিয়ার বউ জোহরা (৫৫)   ইউছুফের স্ত্রী কুসুম (২৫) বাড়ীর বাঁশ ঝাড়ের বাঁশ বিক্রির ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঝগড়ার এক পর্যায়ে এলোপাথাড়ি মারধর শুরু করলে ভাতিজাকে রক্ষার্থে রমেশ চন্দ্র দেবনাথ বাধা দিলে তাকেও মারধর শুরু করে।..
এমন অবস্থায় রমেশ চন্দ্র শরীরে মারাত্মক জখম পেলে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হননিহতের সংবাদ জানাজানি হলে ওই রাত ১১টায় সদর দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) নাসির উদ্দিন মৃধা, ভুশ্চি পুলিশ ফাঁড়ি তদন্ত কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম, ইউপি চেয়ারম্যান অহিদুর রহমান মজুমদার, সাবেক চেয়ারম্যান সামছুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং আহতদেরকে উদ্ধার করে লাকসাম সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করেনআজ শনিবার সকালে এএসপি সার্কেল (দক্ষিণ) মোঃ ইলতুৎমীর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ব্যাপারে সদর দক্ষিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) নাসির উদ্দিন মৃধা জানান যে, হত্যা কান্ডটির বিষয়ে একটি হত্যা মামলা দায়েরের জন্য ভাতিজা বিমল চন্দ্র দেবনাথ বাদী হয়ে  মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।  আহত পবিত্র দেবনাথ (৪০) , প্রতিবন্ধী বিমল চন্দ্র দেবনাথ (৪৫), সুজিতা (৩৫), হেমলতা (৬০), জয় () গুরুতর আহত অবস্থায় লাকসাম সরকারী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেহত্যাকান্ডের সাথে জড়িত আসামীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের  প্রক্রিয়া চলছে




বিজ্ঞাপন মুক্ত এ ব্লগের প্রতিটি খবরে রয়েছে এক ঝাঁক মেধাবী তরুণের অক্লান্ত পরিশ্রম ও সর্বোচ্চ প্রযুক্তির ব্যবহার। তাই আমাদের খবর আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে আমাদেরকে উৎসাহিত করুন।
undefined