আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

লাকসামের ঐতিহ্যবাহী রেলওয়ে জংশনের নাম নিয়ে বিভ্রান্তি!

শামসুল আলাম রাজন: [শনিবার, ০৩ মার্চ ০১লাকসাম নাম শুনলেই নওয়াব ফয়জুন্নেছা চৌধুরাণীর স্মৃতি বিজড়িত স্থান আর এক সময়ের দেশের সবচে বড় রেলওয়ে জংশনের কথা মনে পড়ে।..
বাংলাদেশে বাস করে কিন্তু লাকসাম রেলওয়ে জংশনের নাম শুনেনি এমন মানুষ নেই বললেই চলে ১৮২৭ সালে লাকসাম জংশন প্রতিষ্ঠিত হয় বাংলাদেশের রেল ইতিহাসে লাকসাম নামটি প্রথম থেকেই জড়িতকত লাকসাম কত বাত্তি প্রবাদবাক্য লাকসামের ঐতিহ্যবাহী রেলওয়ে জংশনকে ঘিরে সেই জংশনে এখন আর আগের মতো বাতি জ্বলে না বাতির সাথে সাথে যেন নিভতে যাচ্ছে লাকসাম জংশনের নামটিও
লাকসাম জংশনে প্রবেশ করার সময় চোখে পড়বে প্রধান গেটের উপর বড় একটি সাইন বোর্ডে লেখা আছে লাকসাম রেলওয়ে ষ্টেশন! যা সাধারন মানুষের মনে প্রশ্নের সৃষ্টি করছে যে যুগ যুগ ধরে তারা লাকসাম জংশন নামটি দেখে আসলেও কেন নামটি বাদ দিয়ে লাকসাম রেলওয়ে ষ্টেশন নামটি দেওয়া হল? লাকসাম রেলওয়ে জংশনের যে ঐতিহ্য আর পরিচিতি তাতে লাকসাম রেলওয়ে ষ্টেশন নামটি বিব্রান্তি সৃষ্টি করছে বলে সাধারন মানুষ মনেকরে তাই সকলের দাবি শত বছরেরও পুরনো নামটি তারা যেমন দেখেছে যুগ যুগ ধরে তেমনি তারা চায় আগামী প্রজন্মও লাকসাম রেলওয়ে জংশনকে জানুক লাকসাম জংশন হিসেবেই