আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

'লাকসামে কত বাত্তি জ্বলেরে'...

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ [বুধবার, ২৮ মার্চ ০১২] লাকসাম কুমিল্লার একটি প্রাচীন উপজেলার নাম লাকসামের নাম উঠলেই একটি প্রবাদবাক্য উঠে আসে 'কত লাকসাম-কত বাত্তি' প্রবাদবাক্য লাকসামের ঐতিহ্যবাহী রেলওয়ে জংশনকে ঘিরে সেই জংশনে এখন আগের মতো আর বাতি জ্বলে না..
'কত লাকসাম-কত বাত্তির' উৎপত্তি খুঁজতে গিয়ে বেরিয়ে এসেছে নানা গল্প লাকসামের প্রবীণ সাংবাদিক আব্দুল জলিল জানান_ লাকসাম, নাঙ্গলকোট, মনোহরগঞ্জ, সদর দক্ষিণের একাংশ নিয়ে ছিল তৎকালীন বৃহত্তর লাকসাম তখন এলাকায় বিদ্যুৎ আসেনি রেলওয়ে লাকসাম জংশনে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় পাওয়ার হাউজের মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদন করত বিদ্যুতের মাধ্যমে স্টেশনসহ আবাসিক এলাকায় বাতি জ্বলত গ্রামের লোকজনের কাছে বৈদ্যুতিক বাতি ছিল আলাদিনের চেরাগের মতো জংশনের চারদিকে তখনও শহর গড়ে উঠেনি দূরের গ্রাম থেকেও রাতে বাতির বহর চোখে পড়ত তিনি আরো জানান, প্রথম যখন লাকসাম জংশন থেকে ট্রেন নোয়াখালী রুটে চালু হয়, তখন লাকসামের চন্দনা গ্রামের মানুষ ভয়ে পালিয়ে পার্শ্ববর্তী মনপাল গ্রামে চলে যেত তারা ট্রেনকে আজরাইল মনে করে ভয়ে পালিয়ে যেত এলাকায় ট্রেন বন্ধের জন্য প্রথম প্রথম জনমত গড়ে উঠে তাদের ধারণা ছিল, ট্রেনে অত্র এলাকায় অন্য এলাকার মানুষ প্রবেশ করলে সমাজ সংস্কৃতি ভেঙে পড়বে
ব্রিটিশ তথা পরবর্তী পাকিস্তান আমলে এলাকার মানুষের যাতায়াতের একমাত্র বাহন ছিল ট্রেন লাকসাম জংশন সবসময় উৎসবমুখর ছিল প্রথমে লাকসাম থেকে কুমিল্লা পর্যন্ত রেললাইন চালু ছিল পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে চাঁদপুর, চট্টগ্রাম নোয়াখালীর রেল রুট চালু হয় ১৮২৭ সালে লাকসাম জংশন প্রতিষ্ঠিত হয় অবিভক্ত ভারতে চাঁদপুর থেকে আসাম পর্যন্ত ট্রেন চলাচল করত লাকসামের প্রবীণ রাজনীতিবিদ নাজির আহমেদ ভূঁইয়া জানান, হারিকেন আর কুপি দেখা মানুষ সুইচ টিপ দিয়ে বাতি জ্বালানো দেখে বিস্মিত হয়ে এলাকায় ছড়িয়ে দিল 'লাকসামে কত বাত্তি জ্বলেরে' তা ধীরে ধীরে 'কত লাকসাম-কত বাত্তিতে' রূপান্তরিত হয়
লাকসাম জংশনের স্টেশন মাস্টার মোহাম্মদ আলী জানান, জংশনের পশ্চিম উত্তর দিকে এখনো টাওয়ারে দু'টি বাতি জ্বলে বৈদ্যুতিক সংকটের কারণে আগের মতো বাতি জ্বালানো যায় না আমরা আগের মতো নিজেরা বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে পারি না পিডিবি থেকে বিদ্যুৎ নিতে হয় এছাড়া জংশনের বিদ্যুৎ সরবরাহ বিভাগের লোকবলেরও অভাব রয়েছে আগামী বছর বড় ধরনের জেনারেটর লাকসাম জংশনে বসানো হবে





বিজ্ঞাপন মুক্ত এ ব্লগের প্রতিটি খবরে রয়েছে এক ঝাঁক মেধাবী তরুণের অক্লান্ত পরিশ্রম ও সর্বোচ্চ প্রযুক্তির ব্যবহার। তাই আমাদের খবর আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে আমাদেরকে উৎসাহিত করুন।
undefined