আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

লাকসামে বোরো ক্ষেত ফেটে চৌচির

এমএসআই জসিম: [সোমবার, ১২ মার্চ ০১২] লাকসামের ডাকাতিয়া নদী সংযোগ খালগুলোতে পানি নেই পুকুর, খাল, বিল, ডোবা, জলাশয় শুকিয়ে গেছে পানির স্তর নিচে নেমে গেছে পানির অভাবে লাকসামের হাজার হাজার একর চাষাবাদের জমি ফেটে চৌচির হয়ে গেছে ভয়াবহ বিদ্যুত্ সঙ্কটের কারণে সেচযন্ত্র অচল হয়ে পড়ায় কৃষক পানির জন্য হাহাকার করছে অবস্থায় এবার লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে
জানা গেছে, বর্তমান বাজারে চালের ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় কৃষক সরকারি লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অধিক পরিমাণ জমিতে বোরো চাষাবাদ করেছে লাকসাম নবগঠিত মনোহরগঞ্জ উপজেলার এক-তৃতীয়াংশ কৃষক প্রান্তিক, ক্ষুদ্র বর্গাচাষী জমি বর্গা নিয়ে আগাম টাকা দিয়ে চাষাবাদ করে সংসার চালায়..
এই বর্গাচাষীরা চলতি বোরো মৌসমে জমি চাষাবাদ করছে কৃষক অর্থ ব্যয় করে চাষাবাদ করলেও পানি সঙ্কটের কারণে হতাশ হয়ে পড়েছে ডাকাতিয়া নদী সংযোগ খালগুলোতে পানি নেই পুকুর, খাল, বিল, ডোবা জলাশয় শুকিয়ে গেছে বিদ্যুতের অভাবে সেচযন্ত্র অচল হয়ে আছে ধান গাছ মরে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে কৃষি সম্প্রাসরণ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, এবার চলতি বোরো মৌসুমে লাকসামে বোরোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় হাজার ৮৯৫ হেক্টর এবং অর্জিত লক্ষ্যমাত্রাও হাজার ৮৯৫ হেক্টর নির্ধারণ করা হয় এর মধ্যে গুটি ইউরিয়া ব্যবহার করা হচ্ছে হাজার ৪০৫ হেক্টরে এবার ধানের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা থাকলেও ভয়াবহ বিদ্যুত্ সঙ্কটে আবাদি বোরো জমি ফেটে চৌচির এবং জমিয়ে শুকিয়ে ধানগাছ মরে যাওয়ার উপক্রম হচ্ছে