আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

প্রধানমন্ত্রী সাথে তৃণমূলের নেতাদের মতবিনিময় সভা: আমন্ত্রণ না পাওয়ার অভিযোগ

শাহ্পরান খান: [রোববার,২৬ ফেব্রুয়ারি ০১] জেলার নেতারা নিজেদের ব্যর্থতা আড়াল করতে ত্যাগী নেতাদের আমন্ত্রণ কার্ড দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে আজ রোববার গণ ভবনে প্রধানমন্ত্রী আওয়ামীলীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনার সাথে অনুষ্ঠিতব্য মতবিনিময় সভায় আমন্ত্রণ না পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন কুমিল্লার তৃণমূলের নেতারা।..

নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করে বলেন, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলার অনেক ত্যাগী নেতা কমিটিতে স্থান পায়নি। সেখানে সংগঠনের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক কিংবা আহ্বায়ক যুগ্ম- আহ্বায়কদের আমন্ত্রণ করা হয়েছে। সংগত কারণে তারা তাদের বঞ্চনার কথা নেত্রীকে জানাতে পারবেনা। তার আরো জানান, কিছু বহিষ্কৃত নেতাও কার্ড পেয়েছেন। এরমধ্যে লাকসাম আওয়ামী লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক এডভোকেট ইউনুস ভূইয়াকে পৌর নির্বাচনের সময় বহিষ্কার করা হলেও তিনি গণভবনের মতবিনিময় সভায় আমন্ত্রণ পেয়েছেন
এদিকে আমন্ত্রণের আওতায় থাকলেও জেলার প্রভাবশালী নেতাদের বিরুদ্ধাচারণ করায় কিছু নেতাকে আমন্ত্রণ কার্ড দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ রয়েছে। তৃণমূল নেতারা আমন্ত্রণ না পেলে দলের চিত্র নেত্রীর সামনে কে তুলে ধরবে? অনেক নেতা নিজেদের ব্যর্থতা আড়াল করতে ত্যাগী প্রতিবাদী নেতাদের আমন্ত্রণ কার্ড দেয়নি বলে তারা মন্তব্য করেন

দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দীন আহমেদ বলেন, আমাদের নামে কার্ড ইস্যু হলেও জেলার (নাম প্রকাশ অনিচ্ছুক) এক নেতা কার্ডগুলো আটকে রেখেছেন। এছাড়া শহর যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক আবদুস সালাম বেগ, জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দীন আহমেদ, ভিক্টোরিয়া কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি মুহসিনুর রহমান, শহর ছাত্রলীগ সভাপতি এম.সাইফুল ইসলাম, কুমিল্লা সরকারি কলেজ সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ মিয়া, পলিটেকনিক ইন্সস্টিটিউটের সভাপতি পারভেজ আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক সোহাগ আলীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। তিনি আরো বলেন, কার্ড না দেয়া হলেও তারা গণ ভবনের সামনে গিয়ে বিষয়টি মিডিয়াকে জানাবেন

প্রসঙ্গে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান মিঠু বলেন, আমার অনুসারী অনেক নেতাকে আমন্ত্রণের কার্ড দেয়া হয়নি। নেত্রীর কর্মীদের নেত্রীর সাথে দেখা করতে না দেয়াকে নেতাকর্মীরা কখনও মেনে নেবে না
 কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম সিকদার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, নিয়ম অনুযায়ী সবাইকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে

প্রসঙ্গত, আজ দলীয় সংসদ সদস্য, পৌর মেয়র, কাউন্সিলর, জেলা, উপজেলা, ইউনিয়নসহ অঙ্গ সংগঠনের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ শতাধিক নেতৃবৃন্দ গণভবনের সভায় উপস্থিত থাকবেন। সভায় মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটিসহ সাংগঠনিক বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হবে বলে জানা যায়