আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

ভারত বাংলাদেশ সাইবার যুদ্ধ!


জামিউর রহমান ঢাকা থেকে: অবশেষে সীমান্তের সংঘাতকে সাইবার জগতে টেনে নিয়ে এলো বাংলাদেশি হ্যাকাররা বেশ কয়েকদিন আগে থেকে স্নায়ু যুদ্ধের মত নিরবেই চলছিলো এই যুদ্ধ..
কয়েকদিন পর পর একটা দুটো ওয়েবসাইট হ্যাক এই পর্যন্তই কিন্তু টিপাইমুখ বাঁধ থেকেই যেন প্রতিরোধ এবং আক্রমণ এর মাত্রা বেড়ে গিয়েছে দুই পক্ষ থেকেই
গত ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশি হ্যাকার গ্রুপ Bangladesh Black Hat Hackers সদস্যদের ডিস্ট্রিডিবউটেড ডেনিয়েল অব সার্ভিস বা ডিডস আক্রমণে প্রায় ঘন্টা বন্ধ ছিল ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স বা  বিএসএফ-এর ওয়েবসাইট  www.bsf.nic.in সেই সময়ে কোন ব্যবহারকারী ওয়েবসাইটটিতে গেলে পেইজের কোন কনটেন্ট না দেখিয়ে ওয়েবসাইটের সোর্সকোড প্রদর্শণ করছিল। এই সাইটটি যে সার্ভারে ছিলো সেই সার্ভারে থাকা আরো প্রায় ৪০টি সাইটও ওই একই আক্রমণে বন্ধ হয়ে যায়। এর আগে এই একই BBHH এর আক্রমণে পড়ে ভারতের আরো প্রায় অর্ধশতাধিক ওয়েবসাইট। এর মধ্যে ভারত সরকারের একটি গুরুত্বপূর্ণ ওয়েবসাইটও ছিলো গত ২৫ থেকে ২৮ জানুয়ারির মধ্যে ব্ল্যাকহ্যাট হ্যাকার সদস্যরা ওয়েবসাইটগুলোর নিরাপত্তা ভেঙ্গে হোমপেজের কনটেন্ট পরিবর্তন করে ফেলে। অধিকাংশ সাইটের হোমপেজ পরিবর্তন করে সেখানে লেখা হয়েছে, ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) কর্তৃক বাংলাদেশী হত্যার প্রতিবাদে সাইটগুলো হ্যাক করা হলো। কয়েকটি সাইটে বিএসএফ- হত্যাকাণ্ডের শিকার কিশোরী ফেলানি ঝুলন্ত লাশের ছবিও দেয়া হয়েছিলো প্রতিবাদের অংশ হিসেবে, কেন তারা এই একাজটি করছে। ভারতীয় হাইওয়ে পুলিশের ওয়েবসাইটেরঅ্যাবাউট আসপেজে ফেলানীর ছবি যুক্ত করে সেখানে লেখা হয়,
"Hacked By BACK BONE BD BLACK HAT HACKERS
THIS SITE IS HACKED
BACK CONE
15 Years Innocent Girl Felani Killed By ***** Indian Border Security Force
WE NEVER FORGET @WE NEVER FORGIVE@ WE NEVER GIVEUP
STOP HACKING BANGLADESH SITE & STOP BORDER KILLING ELSE WE WILL DESTROY YOU
CYBER SPACE
WHERE IS HUMANITY?
….SHAME ON BSF….***** BSF…SHAME
ADMIN YOUR SITE DON’T HAVE ANY SECURITY I BREAK IT IN A SINGLE ATTACK” (
সীমান্তরক্ষী বাহিনী কর্তৃক ১৫ বছরের কিশোরী ফেলানী হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এটি আমরা কখনো ভুলবো না, কখনো ক্ষমা করবো না এবং তাদেরকে ছেড়ে দিবো না। সীমান্তে হত্যাকাণ্ড বন্ধ কর অথবা আমরা তোমাদের সাইবার স্পেস ধ্বংস করে দিবো। কোথায় তোমাদের মানবিকতা, কোথায়? এটি বিএসএফ জন্য খুব লজ্জাজনক।)

হ্যাকাররা দাবি করেন, "ফেলানীকে তারের উপর গুলি করে সেটি ছবি বানিয়েছে বিএসএফ, সেগুলো আমরা সর্বত্র দেখেছি। সীমান্ত হত্যার প্রতিবাদে তাই সেই একই ছবি আমরা ঝুলিয়ে দিয়েছি ভারতীয় ওয়েবসাইটে। সীমান্ত হত্যাকাণ্ড না থামলে আমাদের হ্যাকিং কর্মকাণ্ড থামবে না।"
এরপরেই মুলত ভারতীয় Web Defacer India, Striker India, Sen Indishell ,Ashell India এই ৪টি হ্যাকার গ্রুপ বাংলাদেশের বিভিন্ন সাইটের উপর আক্রমণ চালাতে থাকে। ভারতীয় গ্রুপগুলো http://www.commissionerrajshahi.gov.bd/, http://cdvs.ac.bd/, http://bgfcbd.com/, http://nhldc.gov.bd/, http://www.ulabdu.edu.bd/, http://www.adultbanglablog.com/, http://www.nationalnews.com.bd/, http://dshe.gov.bd/, http://www.police.gov.bd/, http://www.fireservice.gov.bd/, http://www.brta.gov.bd/, http://bpsc.gov.bd/, http://molwa.gov.bd/, http://dcbarisal.gov.bd/, http://ptkpolice.gov.bd/ এই ওয়েবসাইট গুলো নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নেয়। এর পড়েই বাংলাদেশী এবং ভারতীয় হ্যাকার গ্রুপগুলো প্রকাশ্যে নিজেদের চ্যালেঞ্জ জানাতে থাকে একে অপরের সাইবার স্পেসে আক্রমণের ক্ষমতা নিয়ে। এরই মধ্যে BBHH(BANGLADESH BLACK HAT HACKERS) গ্রুপের সাথে যোগ দেয় বাংলাদেশী হ্যাকার গ্রপএক্সপায়ার সাইবার আর্মি` এবং `বাংলাদেশ সাইবার আর্মি` সহ মালয়শিয়ান,ইন্দোনেশিয়ান এবং থাইল্যান্ডের হ্যাকার গ্রুপ।এরা ইন্ডিয়ান সাইবার স্পেসে একসাথে আক্রমণের হুমকি দেয় এবং তাদের পালটা জবাব দিতে শুরু করে ভারতীয় আক্রমণের নেতৃত্বে থাকা ইন্ডিশেল নামক একটি গ্রুপ। সিকিউরিটি রে নামক একটি ওয়েবসাইট থেকে জানা যায় ইন্ডিশেল হ্যাকার গ্রুপের  এসএসএক্সটি প্রিন্স (Ssxt Prince) পাকিস্তানের পর এবার বাংলাদেশের সাইবার স্পেস তাদের আক্রমণের লক্ষ্যবস্তু। এর কারণ হিসেবে তারা বাংলাদেশি হ্যাকারদের আচরণকে দায়ী করছে কিন্তু তারা BBHH এর সদস্যরা এর প্রতিবাদে বলেন আমরা কেন এই কাজটি করছি তা ইন্ডিশেল এর কেউ বুঝতে চাইছে না। এটাকেও তারা স্বাভাবিক বলেই জানান।
এদিকে ইউটিউবে বিএসএফ প্রধানের উদ্দেশ্যে একটি ভিডিও (http://www.youtube.com/watch?v=eAyx6V5JHi8&feature=player_embedded) প্রকাশ করেছেবাংলাদেশ ব্লাকহ্যাট হ্যাকার (BBHH)’ গ্রুপ। ভিডিওটিতে দেখা যায় 3D এনিমেশনে করা প্রতিকী একজন সংবাদপাঠক বলছেনহ্যালো বাংলাদেশের নাগরিকরা, আমরা বাংলাদেশ ব্লাকহ্যাট হ্যাকারস। এখন সময় আমাদের চোখ খুলবার। বিএসএফ হাজারেরও বেশি বাংলাদেশি নাগরিককে হত্যা করেছে, তাদের গুলিতে আহত হয়েছে আরও ৯৮৭ বাংলাদেশি। অপহৃত হয়েছে হাজারো মানুষ। এটি মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ। তারা অবিচার করছে। সংকটময় মুহূর্তে বাংলাদেশি নাগরিক হিসাবে আমাদের কিছু দায়িত্ববোধ রয়েছে, আমরা চাই ভারত সরকার নিরপরাধ বাংলাদেশিদের হত্যা করা বন্ধ করুক। নতুবা আমরা ভারতীয়দের বিরুদ্ধে সাইবার যুদ্ধ শুরু করবো। এটি চলতেই থাকবে।

এদিকে শনিবার সন্ধায় আরো /৫টি বাংলাদেশি সরকারি ওয়েবসাইট দখল করে ভারতীয় হ্যাকাররা। এই ব্যাপারে BBHH  গ্রুপ থেকে জানানো হয় এর আগেও বাংলাদেশী সাইটগুলোর এডমিনকে তারা সাইটের নিরাপত্তার ব্যাপারে সাবধান করেছেন। কিন্তু তারা কোন পদক্ষেপ নেয়নি। এই ব্যাপারে কোন দায় তাদের উপরে বর্তায় না বলেই তারা জানান। কারণ হিসেবে তারা বলেন তাদের কাজ সতর্ক করা তা তারা করেই দিয়েছেন। আরো জানান দুর্বল প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার কারণেই এইধরনের আক্রমণের মুখোমুখি হয়েছে এই ওয়েবসাইটগুলো। হ্যাক করার পর এই ওয়েবসাইট গুলোতে যাওয়ার পর দেখা যায় কালো স্ক্রিনে লেখা - ‘হ্যাকড বাই লাভ দ্য রিস্ক, অমল লন্ধে, এলএনএক্স রুট, সাইলেন্ট কিলার

আক্রান্ত ওয়েবসাইটের ওপর ভারতের পতাকাসদৃশ দুটি চোখের ছবির মাঝখানে লেখা দেখা যায়, উই হ্যাভ অন আই অন ইউ- ইনডিশেল ডট আইএন।

এছাড়াইনডিয়ান সাইবার আর্মিনামে হ্যাকারদের আরেকটি সংগঠনের নামও দেখা যায় ওয়েবসাইটে।

আর টিসিবির ওয়েবসাইট লেখা রয়েছে- ‘নো ওয়ান ক্যান স্টপ আস, হ্যাক সৌদি অ্যান্ড হ্যাক্স আর ডট জিরো জিরো টি এর পড়েই বাংলাদেশী এবং পাকিস্তানী,লীবিয়ার কয়েকটি হ্যাকার গ্রুপ একসাথে ভারতের ওয়েবসাইটগুলো হ্যাক করা শুরু করে।এই গ্রুপগুলোর মধ্যে  BBHH,BCA,3CA,TGH,Robot Pirates উল্যেখযোগ্য। বাংলাদেশী হ্যাকার গ্রুপ ভারতীয় ওয়েবসাইট হ্যাক করার এই ব্যবস্থাকে নাম দিয়েছেন 0|* |//|3|2(Op India) এবং ভারতীয় হ্যাকার গ্রুপ এর নাম দিয়েছে 0|*3r@+0// |@//6|_@|3$|-|(Operation Bangladesh) জানা যায় এরই মধ্যে প্রায় ৭০০০+ ওয়েবসাইট দখল করে নিয়েছে বাংলাদেশী এই হ্যাকার গ্রুপগুলো। ইন্ডিশেল বাংলাদেশের সরকারি ওয়েবসাইটগুলোতে হ্যাক করার পড়েই বাংলাদেশীগ্রুপগুলো এই দখল নিয়ে নেয়। এর মধ্যে ভারত সরকারের আইটি বিভাগে ওয়েবসাইট, বলিউডের প্রায় বিখ্যাত ওয়েবসাইট filmicafe.com সহ আরো প্রায় ১০০০ বড় বড় ওয়েবসাইট বাংলাদেশী হ্যাকারগ্রুপের দখলের তালিকায় আছে। সর্বশেষ এই রিপোর্টটি যখন লেখা হচ্ছে তখন ভারত সরকারের Indian Passport, Ministry of External Affairs, Govt. of India এই মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটটি বাংলাদেশী হ্যাকারদের হাতে হ্যাক হয়েছে।
বিশেষজ্ঞরা জানান, বাংলাদেশি ওয়েবসাইট যেগুলো হ্যাক হয়েছে সেগুলো বেশীরভাগই সরকারি। এর কারণ এদের দুর্বল প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা। এবং সরকারি ওয়েবসাইটগুলো প্রায় সবই একই সার্ভারে থাকায় একটি হ্যাক করার পর বাকিগুলো হ্যাক করতে খুব একটা কষ্ট হয় না। এই সাইটগুলোর প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার জন্য তারা মুলত ওয়েব সার্ভারের লেটেস্ট ভার্সনে আপগ্রেড করা,সার্ভারের কোন সিকিউরিটি প্যাচ থাকলে তা আপডেট করা,অ্যাডমিন সিপ্যানেলের পাসওয়ার্ড চেঞ্জ শক্তিশালী করা এগুলোকেই গুরুত্ব দিয়েছেন। এছাড়াও সার্ভারের এডমিন প্যানেল হাইড করে রাখা, পিএইচপি ফাইল যাতে আপলোড করা না যায়, ইমেজ ফাইলের যাতে কোন ক্ষতি না হয় সেইদিকে খেয়াল রাখতে বলছেন।

অনলাইনের সোশ্যাল মিডিয়াগুলোতে রীতিমত ঝড় তুলছে এই আক্রমণ-পালটা আক্রমণের খেলা। বাংলাদেশের তরুণসমাজ ভারতের বেশ কিছু আচরণে ক্ষিপ্ত থাকায় বাংলাদেশী হ্যাকারগ্রুপগুলো পুর্ণ সমর্থন পাচ্ছে তাদের কাছ থেকে। ফেসবুওকের কয়েকটি পেইজের স্ট্যাটাস থেকে যখন বাংলাদেশি হ্যাকারগ্রুপগুলোর ইন্ডিয়ান সাইট হ্যাক করার খবর শেয়ার করা হয় তখন ওইসব পেইজের সাবস্ক্রাইবারদের উল্লসিত হতে দেখা যায়। এর একমাত্র কারণ বাংলাদেশের সীমান্তে নির্বিচারে বাংলাদেশীদের হত্যা, টিপাইমুখ বাধ, তিস্তা পানি চুক্তি আরো নানা কারণ বলেই উল্লেখ করছে তারা। ব্লগসাইটগুলোতেও ঘুরে দেখা যায় এই হ্যাকিং এর খবর নিয়ে আসছে একের পর এক পোস্ট। তাদের কথা একটাই নির্বিচারে সীমান্তে বাংলাদেশিদের হত্যা বন্ধ কর...এবং দেখা যাচ্ছে বাংলাদেশের সাইবার আর্মি এবং অনলাইন পুলিশ বলা হচ্ছে এই হ্যাকারগ্রুপ গুলোকে। ব্যাপক সমর্থনও পাচ্ছেন তারা। একজন তরুণের স্ট্যাটাস থেকে দেখা যাচ্ছে : দিন বদলের ১ম শুরু তোমরাই করলে। এগিয়ে যাও তোমরা।দেশের প্রতি প্রতিটা আঘাতের সমুচিত জবাব দেবে এটাই শুধু প্রত্যাশা... বাংলাদেশ তাকিয়ে আছে তোমাদের দিকে.......

ভারতীয় হ্যাকারদের কবলে পড়া বাংলাদেশী ওয়েবসাইট:
http://www.commissionerrajshahi.gov.bd/
http://cdvs.ac.bd/
http://bgfcbd.com/
http://nhldc.gov.bd/
http://www.ulabdu.edu.bd/
http://www.adultbanglablog.com/
http://www.nationalnews.com.bd/
http://dshe.gov.bd/
http://www.police.gov.bd/
http://www.fireservice.gov.bd/
http://www.brta.gov.bd/
http://bpsc.gov.bd/
http://molwa.gov.bd/
http://dcbarisal.gov.bd/
http://ptkpolice.gov.bd/
 
বাংলাদেশী হ্যাকারদের কবলে পড়া ভারতীয় ওয়েবসাইট:
http://www.remedialrx.com/
http://abhimanyusingh.com/
http://acait.in/
http://amindaily.com/
http://babbarinteriors.com/
http://beautyteengirlsescort.com/
http://brigadecars.com/
http://censyscorp.com/
http://glamourhub.com/
http://jkavenue.in/
http://jubileerevivalag.org/
http://kaamyagroup.com/
http://key4search.com/
http://khushitravels.com/
http://maayafoundation.in/
http://mambizsolution.com/
http://minapjanakpur.org/
http://mindescort.com/
http://mkpp.in/
http://mmaski.in/
http://moneyschool.in/
http://palmsresidency.com/
http://hoovu.in/
http://jobsnews.in/
http://www.newsmediatoday.net/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর