আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

অবিলম্বে লাকসামকে জেলা ঘোষনা করতে হবে, না হলে দূর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে


আবু পলাশ ঢাকা থেকে: [শনিবার,১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১] লাকসামকে জেলা বাস্তবায়নের দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গতকাল শুক্রবার এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে..
ওই দিন বিকেল তিনটায় লাকসাম জেলা বাস্তবায়ন পরিষদের উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয় প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী দীর্ঘ মানববন্ধন অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের আয়োজন করা হয়
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- লাকসাম জেলা বাস্তবায়ন পরিষদের আহ্বায়ক শিব্বীর আহমেদ, পরিষদের প্রধান সমন্বয়ক লাকসাম প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস, লাকসাম উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল খালেক দয়াল, সামাজিক রাজনৈতিক আন্দোলনর কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক আবদুল বাতেন চৌধুরী, লাকসাম দূর্ণীতি প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান দুলাল, সাংবাদিক এম.এস.দোহা, আবদুল লতিফ, ব্যাংক কর্মকর্তা মিজানুর রহমান, রফিকুল ইসলাম সোহাগ, ভ্যাট কর্মকর্তা আবুল খায়ের, প্রফেসর হুমায়ুন কবির মজুমদার, প্রভাষক এনায়েত উল্যা হেজাজী, এডভোকেট নুরুল ইসলাম, ঢাকস্থ লাকসাম সোসাইটির আহাবায়ক মোশারফ হোসেন লাভলু, ঢাকস্থ লাকসাম-মনোহরগঞ্জ বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মাসুদুল আলম, ব্যবসায়ী জাকির হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা আবুল বাসার, সাইফ খান, ব্যবসায়ী সহিদুল হক, আবদুল আউয়াল সুমন,সামছুল আলম রাজন প্রমূখ
লাকসাম জেলা বাস্তবায়ন পরিষদের আহ্বায়ক শিব্বীর আহমেদ বলেন, ১৯৭২ সাল থেকে লাকসামকে জেলা বাস্তবায়নের দাবি জানিয়ে আসছে লাকসামবাসী দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম উপজেলা লাকসাকে বিভক্ত করে আরও চারটি জেলা গঠন করা হয়েছে বৃহত্তর লাকসামের ভোটার সংখ্যা প্রায় আট লাখ দ্রুত লাকসামকে জেলা বাস্তবায়নের জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীসহ সরকারের প্রতি দাবি জানান
সুশীল সমাজের নেতা আবদুল বাতেন চৌধুরী বলেন, ইতিহাস ঐতিহ্যের দিক থেকে লাকসাম অত্যন্ত সমৃদ্ধশালী তিনি বর্তমান সরকারের প্রতি লাকসামকে জেলা ঘোষণার দাবি জানান
লাকসাম উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল খালেক দয়াল বলেন, ১৯৯১ সালে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ১৯৯৮ সালের ১৭ ডিসেম্বর বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান লাকসামবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে লাকসামকে জেলা বাস্তবায়নের আশ্বাস দিয়েছিলেন তাই লাকসাম জেলা বাস্তবায়ন এখন সময়ের দাবি