আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

মনোহরগঞ্জে জমি ভরাট করে রাস্তা তৈরির উদ্যোগ

হোসেন মনির:[বৃহ:স্পতিবার,০২ ফেব্রুয়ারি ২০১] মনোহরগঞ্জ উপজেলায় এক ব্যক্তি তার পরিবারের লোকজনের যাতায়াতের জন্য ১৫টি পরিবারের নিজস্ব ফসলি জমি ভরাট করে রাস্তা তৈরির উদ্যোগ নিয়েছেন তাই বিষয়টি গড়িয়েছে আদালত পর্যন্ত আদালত থেকে রাস্তা তৈরির নিষেধাজ্ঞা দিতে কারণ দর্শানোর জন্য নোটিশ দেয়ার পরও সরকারি দলের দাপট দেখিয়ে এখনও রাস্তা তৈরির অপচেষ্টা করা হচ্ছে..
১৫টি পরিবার ব্যক্তিস্বার্থে রাস্তা তৈরির চেষ্টার প্রতিবাদ করায় দুদফায় পুলিশ পাঠিয়ে তাদের হুমকিও দেয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে  মনোহরগঞ্জ উপজেলার সাতপুকুরিয়া গ্রামের আক্তারুল আলম বাদী হয়ে আদালতে দায়েরকৃত অভিযোগ থেকে জানা যায়, একই উপজেলার খুরুয়া গ্রামের মনির হোসেন তার বাড়ির লোকজনের যাতায়াতের জন্য ১৫ জন ব্যক্তির  মালিকানাধীন  ফসলি জমির উপর দিয়ে গত ডিসেম্বরে রাস্তা তৈরির উদ্যোগ নেয়া হয় এতে ওই জমির মালিকরা প্রতিবাদ জানালে প্রতিপক্ষ মনির হোসেন তার সহযোগীরা  ক্ষমতাসীন দলের দাপট দেখিয়ে রাস্তা  তৈরির সিদ্ধান্তে অনড় থাকে তাই বিষয়টি গড়ায় আদালত পর্যন্ত গত ২৫শে জানুয়ারি আক্তারুল আলম বাদী হয়ে বিজ্ঞ সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আবেদন করলে আদালত বিবাদীদের দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ জারি করে কিন্তু আদালত থেকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়ার পরও বিবাদীরা ওই স্থান দিয়ে ব্যক্তিগত প্রয়োজনে রাস্তা তৈরির জন্য অপচেষ্টায় লিপ্ত থেকে জমির মালিকদের উল্টো হুমকি অব্যাহত রেখেছে বলে জমির মালিকরা অভিযোগ করেন বিষয়ে মামলার বাদী জানান, মামলার বিবাদী এবং ওই বাড়ির লোকজনের বাড়িতে যাওয়ার জন্য বিকল্প আরও ২টি রাস্তা থাকলেও স্থানীয় সংসদ সদস্যের ভাইয়ের শ্বশুর বাড়ির জন্য ওই স্থান দিয়ে ব্যক্তি মালিকানাধীন ১৫ জন জমির মালিকের ফসলি জমির উপর রাস্তা নির্মাণের অপচেষ্টা অব্যাহত  রেখেছে স্থানীয়রা জানান, ওই এলাকায় সরকারি খাসভূমি থাকলেও যাবৎ তা কৃষকদের ইরি স্কিমের ড্রেন হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছিল রাস্তা তৈরির জন্য তাও ভরাট করা হচ্ছে  জমির মালিকরা একজন ব্যক্তি এর পরিবারের স্বার্থে ফসলি উর্বর জমি ভরাট করে ওই রাস্তা তৈরি প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েছে এবং বিষয়ে তারা স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে
undefined