আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

তিনি আমাদের মনির ভাই

আলহাজ মনিরুল হক চৌধুরী তিনি আমাদের পরম আত্মীয়, প্রিয় মনির ভাই বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির পল্লী উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক বৃহত্তর কুমিল্লা- নির্বাচনী এলাকা (বর্তমান কুমিল্লা-১০ নাঙ্গলকোট একাংশ)থেকে সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটে বিজয়ী তিন-তিনবার সংসদ সদস্য সাবেক হুইপ।..
এক সময়ের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাড়া জাগানো আলোড়ন সৃষ্টিকারী তুখোড় ছাত্রনেতা এছাড়াও তিনি দীর্ঘদিন বাংলাদেশের সবচেয়ে ঐতিহ্যবাহী ক্রীড়া সংগঠন মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের সভাপতি পদে দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে দেশ জাতিকে কৃতার্থ করেছেন তাই রাজনীতির বাইরেও একজন দক্ষ সংগঠক শিক্ষানুরাগী হিসেবে তার রয়েছে যথেষ্ট যশ, খ্যাতি প্রতিপত্তি মানুষ হিসেবে তিনি একজন ভদ্রলোক ব্যক্তিগত জীবনে তিনি একজন সত্, সহজ-সরল পরহেজগার ব্যক্তিত্ব সবচেয়ে বড় পরিচয় তিনি আমজনতার মানুষ কৃষক-শ্রমিক মেহনতি মানুষের প্রিয় বন্ধু তিনি সাধারণ মানুষ প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সমস্যাগুলো অত্যন্ত ধৈর্য এবং গুরুত্বসহকারে শ্রবণ করেন তাঁর সততা, একনিষ্ঠতা কর্মতত্পরতার কারণে তাকে এলাকার জনসাধারণ সত্যিকারের নায়ক হিসেবে স্থান দিয়েছেন
জনগণ এলাকার উন্নয়নে তিনি যে পরিমাণ কাজ করেছেন সেটা কল্পনাতীত বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্মাণ উন্নয়ন সাধন, রাস্তাঘাট, পুল-কালভার্ট পাকাকরণ ছাড়াও গ্রামে গ্রামে বিদ্যুত্ সেবা জনগণের দৌরগোড়ায় পৌঁছে দিতে তিনি ছিলেন সর্বদা বদ্ধপরিকর অসহায়, গরিব, দুস্থ এতিম ছেলেমেয়েদের পড়ালেখা এবং চাকরির সুবন্দোবস্ত করে দেয়ার কাজ যেমন করেছেন, তেমন যাবতীয় মসজিদ-মাদরাসা এতিমখানায় সরকারি-বেসরকারি সাহায্য-সহযোগিতা ছিল দেখার মতো
/১১ জরুরি সরকার জাতির ঘাড়ে জগদ্দল পাথরের মতো সওয়ার হওয়ার পর বাংলাদেশের প্রায় অধিকাংশ নেতাকর্মীকে কোনো না কোনো কারণে জেলে যেতে হয় কিন্তু এক্ষেত্রে দূর আকাশের উজ্জ্বল নক্ষত্রের মতো ব্যতিক্রম ছিলেন জনগণের প্রিয় মানুষটি কোনো হীন চক্রান্ত নীলনকশার কূটকৌশলেই তাকে পরাস্ত করতে পারেনি পারেনি তাকে জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন করে জেলে ঢোকাতে পাহাড়সম অবিচল আস্থা ধৈর্যসহকারে তিনি প্রতিটি চক্রান্তকে সামনে থেকে যত্নসহকারে মোকাবিলা করেছেন হীন কাপুরুষ কিংবা মেরুদণ্ডহীন হয়ে তিনি পশ্চাদপসারণ করেননি
পরিশেষে বলবআমরা কুমিল্লাবাসী অত্যন্ত ভাগ্যবান কারণ আমাদর আরও একজন মনির আছেন তিনি মনিরুল হক সাক্কু যিনি সদ্য কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জনগণের বিপুল ভোটে প্রথম নির্বাচিত পৌর মেয়র দুজনই কুমিল্লাবাসীর গর্ব অহঙ্কার আগামী দিনে তারা আমাদের উত্তরোত্তর আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটাবে কামনাই করি
মুহাম্মদ কামাল হোসেন
সহকারী সিনিয়র শিক্ষক, আল মানারাত ইসলামিক স্কুল অ্যান্ড মাদরাসা, ভূশ্চিবাজার, সদর দক্ষিণ, কুমিল্লা.