আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

শুকিয়ে গেছে নদী নাল ॥ চলছে মাছের তীব্র আকাল

ফরহাদ খান বাবুঃ [রোববার,২৯ জানুয়ারি ২০১২] লাকসামে শুষ্ক মৌসুম শুরু না হতেই উপজেলার  নদী-নালা শুকিয়ে গেছে পানির স্তর নিচে নেমে গেছে নদী খালবিল থেকে পানি সেচ দিয়ে বোরো ধান আবাদ করায় পানি শুন্যতা দেখা দিয়েছে সর্বত্র এদিকে খাল বিল, নদী-নালা শুকিয়ে যাওয়ায় হাট-বাজারে দেশীয় প্রজাতির মাছের তীব্র আকাল দেখা দিয়েছে হাট-বাজারে চাষ করা হাইব্রিড মাছের ছড়াছড়ি বিশেষজ্ঞদের অভিমত, কৃষি কাজে মাত্রাতিরিক্ত কীটনাশক, বর্ষা মৌসুমে কারেন্ট জালের ছড়াছড়ি, সোঁতিজাল স্থাপন করে মাছ নিধন, জলাশয় ভরাট, নদী বিলে সেচ দিয়ে মাছ শিকারসহ বিভিন্নভাবে মাছের প্রজনন মাত্রাতিরিক্ত হারে হ্রাস পেয়েছে।..
ফলে দেশীয় মাছের উৎপাদন কমে গেছে হাট-বাজারে দেশীয় প্রজাতি মাছ দুষ্প্রাপ্য হয়ে পড়েছে হাট-বাজারে এখন হাইব্রিড মাছের ছড়াছড়ি বিভিন্ন স্থান থেকে আসা এবং পুকুর জলাশয়ে আবদ করা এসব মাছের দামও বেশী লাকসাম থেকে দেশীয় প্রজাতির অনেক মাছই বিলুপ্ত হয়ে গেছে মৎস্য আইন সম্পর্কে জনগণ সচেতন না থাকায় এবং নানাভাবে পোনা মাছ নিধন করায় দেশী মাছের প্রজনন মারাত্মকভাবে হ্রাস পেয়েছে ফলে দিন দিন দেশী প্রজাতির মাছ কমে যাচ্ছে লাকসামের পুকুর, দীঘি জলাশয় ব্যাপক ভাবে হাইব্রিড জাতের বিদেশী মাছ চাষ হচ্ছে চাষাবাদকৃত মাছের মধ্যে রুই, মৃগেল, থাই স্বরপুটি, পাঙ্গাস, কাতলা, মিনার কাপ, সিলভার কাপ, তেলাপিয়া উল্লেখযোগ্য দেশী মাছের স্থান দখল করেছে হাইব্রিড জাতের মাছ অঞ্চলের নদী-নালা, খাল-বিলে এখন কৈ, শিং মাগুর শোল, টাকি, ইচা, মলা, চিতল, বোয়াল, পুটি, টেংরা, ভেদা, কাচকি, পয়া বাইম, পাবদাসহ দেশী মাছ আগের মতো পাওয়া যায় না মাছ ব্যবসায়ীরা জানান, হাইব্রিড জাতের মাছের কারণে বাজার টিকে আছে বিরুপ আবহাওয়া, পর্যাপ্ত বৃষ্টিপাতের অভাব, বিল, জলাশয় নদী-নালা সংকোচন ভরাটসহ জমিতে ব্যাপকভাবে কীটনাশক ব্যবহার করায় দেশী মাছ কমে গেছে বিলপ্তির হাত থেকে দেশী মাছ রক্ষার তেমন কোন উদ্যোগ সরকারের নেই শুধু আইন প্রকল্পের মধ্যেই এটা সীমবদ্ধ ফলে দেশী মাছের তীব্র আকাল দেখা দিয়েছে বাজার দখল করে নিয়েছে বিদেশী জাতের হাইব্রিড মাছ

undefined