আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

লাকসাম রেলওয়ে জংশনে জনবল সংকট অনিয়মই নিয়ম, যাত্রীদের দুর্ভোগ


সামছুল আলাম রাজন: [শনিবার,২১ জানুয়ারি ২০১২] দেশের অন্যতম শতবর্ষের ঐতিহ্যবাহী লাকসাম রিমডেলিং রেলওয়ে জংশনে জনবল সংকট, অনিয়মই নিয়ম এবং বর্তমানে যাত্রীদের দুর্ভোগ বেড়েছে খুড়িয়ে চলছে শত বর্ষের নির্মিত ঐতিহ্যবাহী জংশন।..
বর্তমানে জনবল সংকটে ঐতিহ্য হারাচ্ছে এবং দুর্নীতি, অনিয়মই নিয়ম যাত্রীদের দুর্ভোগ বেড়েছে রেলওয়ে সূত্রমতে বর্তমানে লাকসাম জংশনে ৮৭টি পদের মধ্যে ৩৩টি পদে লোক নেই এরমধ্যে প্লাটফর্ম স্টেশন মাষ্টার জনের সবগুলো পদ অতিরিক্ত ষ্টেশন মাষ্টার ৬জনের সবগুলো পদ শূণ্য ট্রেন সহকারী গ্রেড- এর ১টি পদ, গ্রেড- এর ১টি পদ, নাম্বার ট্রেইকার জনের মধ্যে ২টি পদ, শান্টিং জমাদারের ১টি পদ, শান্টিং পোর্টার জনের মধ্যে জনের পদ, গার্ড গ্রেড- এর জনের মধ্যে ২টি পদ, গার্ড গ্রেড- এর ১২ জনের মধ্যে ৪টি পদ, প্রধান বুকিং সহকারী ১টি পদ, গ্রেড- এর ২জনের মধ্যে ২জনের পদ, গ্রেড- এর জনের মধ্যে জনের পদ, কলবয় ১টি পদ, ওয়েটিং রুম বেয়ারার ১টি পদ খালী এবং ভিআইপি ওয়েটিং রুম দ্বিতীয় শ্রেণীর ২টি রুমের স্টাফ নেই এছাড়া রেলওয়ে জংশনে বিভিন্ন বিভাগে জনবল সংকট রয়েছে তাছাড়াও শত বর্ষের ঐতিহ্যবাহী জংশনে দীর্ঘদিন ধরে জবর দখল, অনিয়মই নিয়ম, রেলওয়ের লাখ লাখ টাকার সরঞ্জাম লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে স্থাপিত রেলওয়ের ট্রাফিক, লোকোমোটিভ, কেরিজ এসএসই পুর্ত, এসএসই পথ, মেডিকেল, সিগনাল, বিদ্যুৎ, স্যানিটেশন, নিরাপত্তা, এসএসই ডাবল লাইন, স্টেট ডিপার্টমেন্ট মিলিয়ে লাকসাম হেড কোয়াটারের আওতায় দেড় সহস্রাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী, শ্রমিক কর্মস্থলের দুই তৃতীয়াংশের বাসস্থান ছিল লোকোকলোনী, ট্রাফিক কলোনী, মেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং কলোনী, নিউ কলোনী এলাকার বাড়ী ঘরগুলো

স্বাধীনতার পরপরই বিভিন্ন বিভাগের নিম্ন ক্যাটাগরি কর্মচারীগন এসব বাংলোর দখল নেয় এবং বিভিন্ন নামের ইউনিয়ন করে তাদের নামে বরাদ্দ করে নেয় বর্তমানে রেলওয়ে থানার (জিআরপি) পশ্চিমাংশ রেল পুলিশের জন্য ৩টি বাংলো ঘর সহ অনেক কোয়াটারগুলোতে বাস অযোগ্য ঘোষনা করা হলেও সেখানে কর্মকর্তা কর্মচারী, শ্রমিক নন এমন লোকজন স্ব-পরিবারে বসবাস করছে রেলওয়ের কোয়াটার বাংলোর ঘরগুলো এখন বেদখলে এক শ্রেণীর কর্মকর্তা কর্মচারীগনের সহায়তায় রেলওয়ের বাংলো কোয়াটারের মালামাল, কলের যন্ত্রাংশ, বাথরুমের কমোট, ইট, টিন, রড, দরজা-জানালাসহ যাবতীয় মালপত্র ক্রমান্বয়ে লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে এসব ঘরের নির্মাণ সামগ্রী সংগঠন, প্রতিষ্ঠান বা পাকাঘাট করার নামে লুটপাট হয়েছে
বর্তমানে বসবাসকারীরা ফ্রি স্টাইলে নিজ নিজ কোয়াটারে থাকলেও এসব ঘরে রেলওয়ের পানি সরবরাহ, পাইপ লাইন, সুইপার ল্যাট্রিন পরিষ্কার করে রেলওয়ের বিদ্যুৎ জ্বলে এসব পাকাঘরে রান্না চলে কলোনীর বিভিন্ন স্থানে টংঘরে যেসব দোকান রয়েছে তাদের ব্যবহৃত বিদ্যুৎ বিল কাদের দিতে হয় জানতে গেলে সঠিক কোন জবাব পাওয়া যায়নি সবার জানাজানিতেই রেলওয়ের লাখ লাখ টাকার সম্পদ লুটপাট অপচয় হচ্ছে এবং ব্যক্তি স্বার্থে রেলওয়ের কলোনীগুলোতে বিদ্যুৎ ভোগ করছে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এক শ্রেণীর কর্মকর্তা কর্মচারীর পকেট ভারী হলেও রেলওয়ের রাজস্ব আয় হচ্ছে না কর্মকর্তা থাকলেও তাদের কারো মাথা ব্যাথা নেই এবং দেখার বা জবর দখলকারীদের উচ্ছেদে কোন প্রদক্ষেপ নেই বিগত বিএনপি জোট সরকারের আমলে ঐতিহ্যবাহী জংশনে কোটি টাকা ব্যয়ে উন্নয়ন করে রিমডেলিং জংশন করা হয়
বর্তমানে ঐতিহ্যবাহী জংশনের সার্বিক পরিসি'তি দিন দিন ধ্বংসের দিকে ধাবিত হচ্ছে এবং লাকসাম রেলওয়ে জংশনে জনবল সংকট, সকল অনিয়মই এখন নিয়মে পরিণত হয়েছে যাত্রীদের দূর্ভোগ বেড়েছে
undefined