আমাদের নিউজ পোর্টাল ভিজিট করুন ...

মনোহরগঞ্জে স্কুলে তালা:এলাকায় উত্তেজনা

[রোববার, ১৫ জানুয়ারি ২০১] মনোহরগঞ্জের বড় কেশতলা হাই স্কুলে পছন্দের প্রার্থীকে নিয়োগ না দেয়ায় ম্যানেজিং কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম স্কুলের প্রধান শিক্ষক গাজীউর রহমান এর অফিস কক্ষে তালা লাগিয়ে দিয়েছে এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে ছাত্র-ছাত্রী এবং অভিভাবকদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।..
ঘটনার বিষয়ে থানায় প্রধান শিক্ষকের দায়ের করা জিডি অনুযায়ী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণে ইউএনও নির্দেশ সত্ত্বেও পুলিশ গতকাল পর্যন্ত কোনো পদক্ষেপ নেয়নি ঘটনার বিবরণে জানা যায়- গত জানুয়ারি বড় কেশতলা হাই স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষকের শূণ্য পদে লোক নিয়োগের ইন্টারভিউ অনুষ্ঠিত হয় এতে ওই স্কুলের একজন সহকারী শিক্ষক জাকির হোসেনসহ ৫জন প্রতিযোগিতা করে ইন্টারভিউতে জাকির হোসেন দ্বিতীয় হয় ১ম হন তারেক হায়দার নামে একজন প্রার্থী নিয়োগ বোর্ড ১ম স্থান অধিকারীকে নিয়োগ প্রদানের জন্য সুপারিশ করে কিন্তু স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম ইন্টারভিউতে দ্বিতীয় স্থান অধিকারী সহকারী শিক্ষক জাকির হোসেনকে নিয়োগ দিতে প্রধান শিক্ষকসহ নিয়োগ বোর্ডের উপর চাপ সৃষ্টি করে এতে প্রধান শিক্ষক গাজীউর রহমান অপারগতা প্রকাশ করেন ক্ষিপ্ত হয়ে রফিকুল ইসলাম গত ১১ জানুয়ারি প্রধান শিক্ষকের কক্ষে তালা লাগিয়ে দেন ঘটনার বিষয়ে রফিকুল ইসলামের সাথে কথা বললে তিনি প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অশ্রাব্য ভাষায় গালাগালি করে বলেন আপনি যে সাংবাদিক তা আমি কিভাবে বুঝবো উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদেক আহমেদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন- আমি বিধি মোতাবেক আইনগত ব্যবস্থা নিতে ওসিকে লিখিত অনুরোধ জানিয়েছি ওসি ফরিদউদ্দিন বলেন, আমি গত পরশু দিন থেকে ছুটিতে ঢাকায় আছি আমার কাছে সংক্রান্ত কোনো কাগজ আসেনি স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার সিরাজুল হকের সাথে কথা বললে তিনি জানান- তালা লাগানোর কথা আমি শুনেছি কেন লাগিয়েছে বা কি কারণে লাগিয়েছে সে বিষয়ে কিছু জানি না আমি অসুস্থ থাকায় বর্তমানে ঢাকায় চিকিৎসাধীন আছি